মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

উপজেলার ঐতিহ্য

বুড়িচং উপজেলার পূর্বনাম ছিল উত্তর বিজয়পুর। কিংবদন্তী অনুসারে খৃষ্টীয় একাদশ শতকের গোড়ার দিকে এই উত্তর বিজয়পুর গ্রামে বহু জ্ঞানী-গুণীর আবাসস্থল ছিল। একাদশ শতকের দিকে চৈনিক পরিব্রাজক ‘ইয়েন সাং’ উত্তর বিজয়পুর পরিদর্শণ করতে আসেন এবং এলাকার জ্ঞানী-গুণীদের সাহচর্যে মুগ্ধ হন। ঐ সময় তিনি এই এলাকাকে ‘বুড্ডি চিয়াং’ নামে অভিহিত করেন। চৈনিক ভাষায় বুড্ডি চিয়াং এর বাংলা অনুবাদ করলে দেখা যায়, বুড্ডি অর্থ বুদ্ধি বা জ্ঞানী বা শিক্ষা এবং চিয়াং অর্থ আবাসস্থল বা আস্তান ইত্যাদি বুঝায় । তাই বুড্ডি চিয়াং এর আভিধানিক অর্থ দাড়ায় জ্ঞানী ও গুণীর আবাসস্থল। উক্ত বুড্ডি চিয়াং নাম হতে কালক্রমে মানুষের মুখের ভাষায় সহজ বলার তাগিদে বুড্ডিচং এবং পরে বুড়িচং নামের উৎপত্তি হয়। কুমিল্লা সদর (কোতয়ালী) এর কিছু অংশ ও বর্তমান ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার জেলার কিছু অংশ নিয়ে ১৯১৬ সালে একটি পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনের মাধ্যমে বুড়িচং থানার গোড়াপত্তন হয়।

১৯৬৩ সালে ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে বুড়িচং থানা একটি উন্নয়ন সার্কেল-এ রূপান্তরিত হয়। ১৯৭০ সালে এটি একটি পূর্ণাঙ্গ ও স্বতন্ত্র থানা হিসাবে প্রতিষ্ঠা পায়। ১৯৭৮ সালে এই থানার ৭টি ইউনিয়ন নিয়ে ব্রাহ্মণপাড়া নামে অপর একটি থানার সৃষ্টি হয়। অবশিষ্ট ৮টি ইউনিয়ন নিয়ে ১৫/০৪/১৯৮৩ খ্রিস্টাব্দে বুড়িচং থানা উপজেলা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে। বুড়িচং উপজেলার উত্তরে ব্রাহ্মণপাড়া, দক্ষিণে কুমিল্লা আদর্শ সদর, পূর্বে ভারতের ত্রিপুরা, পশ্চিমে চান্দিনা ও দেবিদ্বার উপজেলা অবস্থিত। বর্তমানে ২৫ টি সরকারি অফিসের সমন্বয়ে বুড়িচং উপজেলা প্রশাসনের কার্যক্রম চুড়ান্তভাবে পরিচালিত হচ্ছে।